সান ফ্র্যান্সিসকো সায়েন্স হ্যাকাথন ও আমাদের পদক জয়

আমরা ৫ জনের এই দলটা এখন ৭ জনের দল। পরিচয় করিয়ে দেই একটু, ডান থেকে ডেটা সায়েন্টিস্ট ব্রেন্ডা, এআই এক্সপার্ট জুলিয়া, কোডার টিগন, ডিজাইনার কলিন, ইউএক্স ডিজাইনার কেশিয়া, বিখ্যাত দিয়া ও আমি। আমরা একটা টিম হিসেবে আজ সকাল থেকে কাজ করছি স্যান ফ্রান্সিসকো সায়েন্স হ্যাক ডে’তে। আমাদের প্রজেক্টের নাম ‘নিউজ নট নয়েজ’। শুরুতে পরীক্ষামূলকভাবে বানানো হচ্ছে এর একটা ক্রোম এক্সটেনশন। এটায় সফল হলে পরে ওয়েব আকারে তৈরি হবে।

হ্যাকাথনে আমাদের দল।

হ্যাকাথনে আমাদের দল।

প্রায় ১০০ তরুণ-তরুণী ইন্টারেস্টিং সব আইডিয়া নিয়ে ‘সায়েন্স হ্যাক ডে’ নামের এই আয়োজনে স্যান ফ্রান্সিকোর কলিন স্ট্রিটের গিটহাব হাউজে হাজির হয়েছে উইকেন্ডের সকাল বেলা। দারুন দারুন আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিনমান কাজ চলেছে পুরোদমে। কেউ বানাচ্ছে সরীসৃপ, কুকুর ও ব্যাঙ রোবট, অ্যাস্টরয়েড স্ন্যাপশট, রুমের ধুলা পরিমাপক যন্ত্র, ক্যান্ডি থ্রিডি মডেল, ওয়েদার মডিফিকেশন যন্ত্রসহ শনি গ্রহের বলয়, আবার আমার পাশের দলটা স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে ঘরের মধ্যে গাছ জন্মানোর দারুন একটা পদ্ধতি নিয়ে কাজ করছে। গাছ লাগিয়ে ৬ মাস খোজ না নিলেও হবে। অটো হারভেস্ট হয়ে যাবে। প্রতি দশ মিনিট অন্তর অন্তর সেই টিমটা গাছকে নানা তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের আলো দিয়ে গাছের প্রতিক্রিয়া লিখে রাখছে। আর কিছু কিছু প্রজেক্ট এত জটিল যে আমি এখনো বুঝে উঠতে পারিনি। সর্বমোট প্রজেক্ট সংখ্যা ২৮।
10350420_10153291148460318_7642494900115807643_n
কাল দুপুরের মধ্যে কাজ শেষ করার জন্য আজকে রাতে এখানে রয়েছে থাকার ব্যবস্থা সবার। ইনডোর গেমস আর খাওয়া দাওয়ার ব্যবস্থাও অফুরান। নতুন কিছু আবিষ্কারের আনন্দ যে কী আনন্দ সেটা বলে বোঝানো মুশকিল। এক ঘর ভর্তি পাগলাটেসব লোকজনের সঙ্গে কাজ করা দারুন আনন্দের।

ফলোআপ: আমাদের দলটি সোশ্যাল ক্যাটাগরিতে পদক জিতেছে। হিপ হিপ হুররে। অন্য কোন এক লেখায় আরও বিস্তারিত লেখার ইচ্ছা আছে।


সিমু নাসের/কলিন স্ট্রিট/স্যান ফ্রান্সিসকো/ক্যালিফোর্নিয়া/ইউএস/২৫ অক্টোবর ২০১৫

Advertisements