আমার সাড়ে পাঁচবার পৃথিবী পদক্ষিন করার দলিল

আপনি জানেন কি, আমি আমার এই ক্ষুদ্র জীবনে আকাশপথে প্রায় সাড়ে পাঁচবার পুরো পৃথিবী চক্কর দিয়েছি? আপনি জানেন কি আমার জীবনের পাক্কা ১২.৪টা দিন (২৯৬ ঘন্টা ২৫ মিনিট) আমি আকাশে ভেসে ছিলাম, ভ্রমণ করেছি ২ লক্ষ ১১ হাজার ৯৮ কিলোমিটার! পুড়িয়েছি সাড়ে ২৫.৭ টন কার্বনডাই অক্সাইড, ১.৪৩ কেজি মিথেন ও ১.১৭ কেজি নাইট্রাস অক্সাইড।

flightকাজের চাপ বেশি থাকলে নিজেকে ফাঁকি দেওয়ার ‘আজাইরা’ কাজ করাই যেতে পারে। তাই বসে বসে এই আজাইরা কাজটা করলাম। ইমেইলে টিকিট এবং ভ্রমনের বিস্তারিত আছে এরকম তথ্যগুলো ইনপুট দিলাম ফ্লাইটডায়েরি ডটনেট নামক এই সাইটে। এরপর বেরিয়ে এলো বেশ মজার মজার তথ্য। এদের বিশ্লেষন অনুযায়ী বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত আমি বেশ ডাউন টু দ্য আর্থই থাকি। এরপর মে থেকে ডানা গজাতে থাকে। আবার ফেব্রুয়ারিতে এসে শান্ত হই। আর সপ্তাহের শুক্র থেকে মঙ্গল পর্যন্ত আমি উড়েছি বেশি। বুধবার আমি মাটিতেই থেকেছি। সবচেয়ে বেশিবার ভ্রমন করেছি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ বিমানে। সবচেয়ে লম্বা সময় একটানা ১৮ ঘন্টা আকাশে থেকে ভ্রমণ করেছি ৮১৫৪ কিলোমিটার। মোটমাট ৫৪ বার ফ্লাই করেছি। এর মধ্যে ২০টা ডোমেস্টিক আর ৩৪টা ইন্টারন্যাশনাল ফ্লাইট।

আরও বিস্তারিত পাওয়া যাবে এখানে এবং এখানে । তবে বিস্তারিত তথ্য না থাকায় ২০১১ সালের আগের ৮টা ফ্লাইট আর ২০১৩ সালের ৩/৪টা ফ্লাইটের তথ্য এখানে ইনপুট করা হয়নি। আর এখনো অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে পা রাখা হয়নি বলে এরও কোন তথ্য এখানে নেই। আর ছবিতে হলুদ রেখা মানে হলো এই রুটে একবার করে ভ্রমণ করেছি, আর লাল রুট মানে এই রুটে একাধিকবার ভ্রমণের ইতিহাস আছে।

আহা, মানুষ আমি আমার কেন পাখির মতো মন ♫♫♫

সিমু নাসের/কারওয়ানবাজার/ঢাকা/বাংলাদেশ/৩ ডিসেম্বর ২০১৬/রাত ৯:৩৮

Advertisements