গত সাড়ে চার বছর ধরে আমি হর্ণ বাজাই না

horn 1আমি গত সাড়ে চার বছরে কোন হর্ণ বাজাই নাই। গাড়িতেও না মটর সাইকেলেও না।

জানি ব্যাপারটা অনেকেই বিশ্বাস করছেন না। চাপাবাজি ভাবছেন। ভাবতে পারেন। কারণ আমি চাপাবাজি করি না এমন না। আই এম নট এ ক্লিন তুলসিপাতা। কিন্তু এই বিষয়টা নিয়ে চাপাবাজি করছি না। কারণ প্রথম এক বছর ইচ্ছা থাকলেও বাইকের হর্ণ বাজাইতে পারতাম না।

কেন? কারনটা খুব সিম্পল। বাইকের হর্ণটা নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। আমার বিখ্যাত আলসেমির কারনে হর্ণ ছাড়াই ছয় মাস বাইক চালানোর পর দেখলাম ঢাকা শহরে বাইক চালাতে হর্ণ লাগে না। লাগে শুধু একটু সতর্কতা। তো কি দরকার হর্ণ ঠিক করার। তাই হর্ণের বদলে সেই সতর্কতাকে পুজি করে গত আড়াই বছরে বাইক আর গাড়ি মিলিয়ে চালিয়েছি প্রায় ৩২,০০০ কিলোমিটার। এর ভেতর বড়-ছোট কোন অ্যাকসিডেন্ট তো দূরের কথা কারও গায়ে ফুলের টোকাও দেই নি।

তাইলে ঢাকা শহরে এত যে প্রাইভেট কার আর বাইক পাগলের মতো হর্ণ বাজায়, কেন বাজায়? আমার অভিজ্ঞতা থেকে আমি বলি, এর কোন প্রয়োজন নাই। জাস্ট মানসিক কারনে বাজায়। অভ্যাসের কারণে বাজায়। যার শতকরা ৯৮ ভাগই জানে না কেন বাজাচ্ছে। হর্ণ বাজালে মনে একটা শান্তি আসে হয়তবা।

একটা ঘটনা বলি। তিন-চার মাস আগে অফিস থেকে বাইক নিয়ে বেরিয়েছি। কারওয়াজন বাজার আন্ডার পাসের পাশে যে সার্ভিস লেন সেখানকার গিট্টুতে আটকে আছি। আমার পেছনে একটা সাদা প্রাইভেট কার। আর ডানে মিরপুরের একটা লোকাল বাস। হঠাৎ পেছনের প্রাইভেট পাগলের মতো হর্ণ দেওয়া শুরু করলো। ১০/১২ বার হর্ণ দেওয়ার পর আমি পেছন ফিরে জানতে চাইলাম, ভাইরে কি সমস্যা। এত হর্ণ দিচ্ছেন কেন? কি হইছে আপনার? মাথা তো খারাপ হয়ে গেল।

গাড়ির ড্রাইভার মাথা বের করে বলল, আপনি চেতেন কেন? আমি তো আপনারে হর্ণ দিতেছি না। আমি হর্ণ দিচ্ছি ওই্ গাড়িরে। আপনের কি?
আমি অনেকক্ষন বুঝতেই পারি নাই, উনি কি বলতে চাইছেন। সার্ক ফোয়ারার কাছে এসে বাইক চলা শুরু করার পর উনার জবাবটা আমি বুঝতে পারছিলাম। এই হলো আমাদের গাড়ি চালকদের অবস্থা।

Hornযাই হোক এত কথা বলছি এই কারণে যে, আমার ফেসবুকে বন্ধুরা যারা বাইক বা গাড়ি চালান তারা কিছুদিন একটু চেষ্টা করে দেখেন। যাদের গাড়ি ড্রাইভার চালায় তাদের অযথাই হর্ণ দিতে মানা করুন। বকা দিন তাদের। প্রথমে একটু সমস্যা হতে পারে। কিন্তু কিছুদিনের ভেতরই অভ্যাস হয়ে যাবে। তখন আর হর্ণ না দেওয়া ছাড়া গাড়ি বা বাইক চালানোকে পাগলের প্রলাপ মনে হবে না। শুধু একটু দেখে শুনে গাড়ি চালাবেন। আশেপাশের গাড়ি আর রাস্তায় নেমে আসা পথচারীদের দিকে একটু খেয়াল রাখবেন। একবারও হর্ণ চাপতে হবে না। সত্যি বলছি। এত হর্ণের শব্দে পাগল হয়ে যাচ্ছি। অসুস্থ হয়ে যাচ্ছি।

horn 2হর্ণ ছাড়া বাইক বা গাড়ি চালানো যায়, এটা যদি এখনো কেউ বিশ্বাস না করেন তাইলে চাইলে আমার বাইকের পেছনে বা গাড়িতে চড়ার আমন্ত্রন রইলো। আসুন দেখুন শিখুন। তবুও হর্ণ বাজাবেন না, প্লিজ। অযথাই হর্ণ বাজানোটাকে এখন অসভ্যতা বলে মনে হয় আমার।

Advertisements